মধুপুরে ৮দিন ব্যাপি জনশুমারী ও গৃহ গণনা প্রশিক্ষন - BSP TV 24

শিরোনাম

মধুপুরে ৮দিন ব্যাপি জনশুমারী ও গৃহ গণনা প্রশিক্ষন

জনশুমারীতে তথ্য দিন, পরিকল্পিত উন্নয়নে অংশ নিন,, এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে টাঙ্গাইলের মধুপুরে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিসংখান অফিস কর্তৃক আয়োজিত জনশুমারী ও গৃহগণনা প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। গত ৪ জুন শনিবার থেকে ১২ জুন রবিবার ২০২২ইং পর্ষন্ত জনশুমারী ও গৃহগণনা প্রশিক্ষণ উপজেলার গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ ও মধুপুর রানী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয়ে ২টি ধাপে পরিচালিত হচ্ছে। ১ম ধাপে জনশুমারী ও গৃহগণনা ২০২২ ইং এর জন্য সুপারভাইজার ও তথ্য সংগ্রহকারীদের ১ম ব্যাচের চারদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমের প্রশিক্ষক মানিক মিয়া জানান সকাল ৯টা হতে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্ষন্ত তথ্য সংগ্রহের জন্য বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।এই প্রশিক্ষণে ১ম ব্যাচে ৮জন সুপারভাইজার ও ৪৮জন গননাকারী এবং ২য় ব্যাচে ৪৮জন গননাকারী ও ৭ জন সুপারভাইজার সহ মোট ১১১জন প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। মধুপুর রানী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রশিক্ষক মোঃ সুরুজ আলী জানান,১ম ব্যাচে ৭জন সুপারভাইজার ও ৩৯জন গণনাকারীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে এবং২য় ব্যাচে ৪৪জন গণনাকারী ও ৬জন সুপারভাইজার সহ মোট ৯৬জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এ প্রশিক্ষণ ধারাবাহিক ভাবে উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়নে পরিচালিত হবে। এই গণনা কাজে ব্যবহারের জন্য তথ্য সংগ্রহকারীদের প্রত্যেককে একটি করে ট্যাব প্রদান করা হয়। গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের হল রুমে প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে ট্যাব তুলে দেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা খান বাবলু এবং রানী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয় প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে ট্যাব তুলে দেন প্রশিক্ষক সুরুজ আলী। এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে গোলাম মোস্তফা খান বাবলু প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই জনশুমারী গণনায় কোন ভাবেই অবহেলা করা যাবেনা, প্রত্যেক বাড়ি বাড়ি গিয়ে সঠিক তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। গণনাকালীন সময়ে যদি ঐ বাসাবাড়িতে কোন আত্মীয়স্বজন থাকে সেক্ষেত্রে তাদের তথ্য সহ সংগৃহীত করতে হবে। বাড়িতে বসে মনগড়া তথ্য সংগ্রহ করা যাবেনা।