বাইডেন করোনার সঙ্গে সর্দি-কাশি, গলা-শরীর ব্যথায় ভুগছেন - BSP TV 24

শিরোনাম

বাইডেন করোনার সঙ্গে সর্দি-কাশি, গলা-শরীর ব্যথায় ভুগছেন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সংক্রামক এই ভাইরাস থেকে এখনও পুরোপুরি সেরে উঠেননি তিনি। এরই মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশটির এই প্রেসিডেন্ট সর্দি-কাশি এবং গলা ও শরীর ব্যথায় ভুগছেন বলে খবর সামনে এসেছে।যদিও এসব অসুস্থতাকে ‘কম কষ্টকর’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট বাইডেনের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে রোববার (২৪ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ।মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত সপ্তাহে করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হন। গত বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউস থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়। ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর ৭৯ বছর বয়সী ডেমোক্র্যাটিক এই প্রেসিডেন্ট তার সরকারি বাসভবন হোয়াইট হাউসে আইসোলেশনে আছেন।এছাড়া তার চিকিৎসায় ফাইজার কোম্পানির ওষুধ প্যাক্সলোভিড ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও একইদিন জানিয়েছিলেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি ক্যারিন জিন-পিয়েরে।

 

এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্টের শারীরিক অবস্থা নিয়ে স্থানীয় সময় শনিবার (২৩ জুলাই) আপডেট জানান বাইডেনের চিকিৎসক ডা. কেভিন ও’কনর। শনিবার এক মেমোতে তিনি বলেন, করোনার উপসর্গগুলো থেকে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের উন্নতি অব্যাহত রয়েছে। তবে তিনি এখন গলা ব্যথা, সর্দি, আলগা কাশি এবং শরীরে ব্যথায় ভুগছেন। তবে এগুলো ‘কম কষ্টকর’।তিনি আরও বলেন, বাইডেনের ফুসফুস পরিষ্কার রয়েছে এবং তার অক্সিজেন স্যাচুরেশনও ‘রুমের বাতাসে দুর্দান্ত অবস্থায় রয়েছে’।সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। করোনভাইরাসের একটি অত্যন্ত সংক্রামক সাবভেরিয়েন্টের কারণে উত্তর আমেরিকার এই দেশটিতে সংক্রমণ বেড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।চিকিৎসক ও’কনর বলেছেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেন সম্ভবত করোনার বিএ৫ ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি আরও বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ভালোভাবে চিকিৎসা গ্রহণ করে চলেছেন। আমরা পরিকল্পনা অনুযায়ী প্যাক্সলোভিড (এর মাধ্যমে চিকিৎসা) চালিয়ে যাবো।বাইডেনের চিকিৎসক ডা. কেভিন ও’কনর আরও বলেন, ‘তিনি (জো বাইডেন) শ্বাসকষ্ট অনুভব করছেন না। তবে করোনার বিএ৫ ভ্যারিয়েন্টটি বিশেষভাবে সংক্রমণযোগ্য এবং এ কারণে তাকে (বাইডেন) আইসোলেশনে থাকতে হবে। খুব সাধারণ বহিরাগত রোগীর মতো চিকিৎসা পদ্ধতি মেনে চলার সময় আমরা তাকে ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করবো।