আলীকদমে ইউপি চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন ও এক পুলিশ কর্তৃক নির্যাতনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন - BSP TV 24

শিরোনাম

আলীকদমে ইউপি চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন ও এক পুলিশ কর্তৃক নির্যাতনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

বান্দরবানের আলীকদমে সদর ইউপি চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন পুলিশের সহায়তায় জমি জবর দখল ও হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য সংবাদ সম্মেলন করেছেন আলীকদম ০৩নং নয়াপাড়া ইউনিয়নের স্থায়ী বাসিন্দা ঠান্ডা মিয়ার পরিবার। আজ ২৩জুলাই( শনিবার) দুপুর ১২.০০ঘটিকার সময় আলীকদম দামতুয়া রিসোর্ট হল রুমে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়, এতে দুই পৃষ্ঠার লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঠান্ডা মিয়া পরিবারের কয়েকজন সদস্য। লিখিত বক্তব্যে উম্মে শেলি নামে একজন বলেন, বিগত ১৯৮৪-১৯৮৫ইং সনের নাছির উদ্দীন চেয়ারম্যানের পিতা ছিদ্দিক আহাম্মদের জমি হইতে খাস করতঃ বন্দোবস্তি মূলে ক্রয়কৃত জমির (হোল্ডিং নং ৩১৮, খতিয়ান ৮৩, দাগ নং ২৫৬৮-২৫৬৭)এর অংশ ও ২৭০০নং দাগের আন্দর জমির পরিমাণ ৬.৪০ একর দ্বিতীয় শ্রেণির জমি রয়েছে। ছিদ্দিক আহাম্মদের জায়গা হতে ঠান্ডা মিয়ার নামে বন্দোবস্তি হওয়া পরবর্তী জমির সীমানা পরিচিন্নিত ও মাফজোপের বিষয়ে ছিদ্দিক আহাম্মদ বেঁচে থাকা অবস্থায় এবং তিনি মৃত্যু বরণ করার পরও তাহার ওয়ারিশগং অর্থাৎ নাছির উদ্দীন চেয়ারম্যানগংদের শরণাপন্ন হলেও দীর্ঘদিন পর্যন্ত জায়গার সীমানা নির্ধারণ না করিয়া ঠান্ডা মিয়ার খতিয়ান ভুক্ত জমির অংশ হতে ক্ষমতার দাপটে প্রতিষ্ঠান এবং ব্যাক্তির নামে এবং দেশীয় দলিল এবং দান মুলে জমির অবৈধ হস্তান্তর করে।মূলত ৮৩ নং খতিয়ানের ২৫৬৮,২৫৬৭,২৭০০ দাগের ছিদ্দিক আহাম্মদের নামীয় সর্বমোট জমির পরিমাণ ৯.৯৫একর হইলেও দলিল, দান, এবং বায়না নামে মূলে ১০.৩০ একর জায়গা অবৈধ হস্তান্তর করে অর্থাৎ ছিদ্দিক আহাম্মদের মুল জায়গা হতে. ৩৫ একর জায়গা প্রতারণা পূর্বক ছিদ্দিক আহমদের ওয়ারিশ নাছির উদ্দীন চেয়ারম্যান গং অবৈধ হস্তান্তর করে। এই নিয়ে আমাদের চেয়ারম্যান গং দের সাথে বিরুধ চলে আসছিল, এবং পরবর্তীতে আমরা আদালতের শরণাপন্ন হয়, আদালত আমাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে উক্ত জায়গার উপর ১৪৫, ধারা জারি করে।এবং আমরা উক্ত জায়গায় শান্তি পূর্ণ ভাবে অবস্থান করছিলাম।এমতাবস্থায় গত- ১৯/০৭/২২ইং রাত ১০.৩০ মিনিটের সময় আমাদের পরিবারের কেউ খাওয়া দাওয়া অবস্থায় কেউ নামাজরত,আবার কেউ শিশুদের ঘুমানোর প্রস্ততি নিচ্চিল।ঠিক সেই মুহুর্তে নাছির উদ্দীন গং ও তার ভাড়াটে সন্ত্রাসী, সাথে পুলিশ নিয়ে গিয়ে কোন রকম অভিযোগ, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা, মামলার কপি ছাড়া আমাদের বাড়ির চারদিকে ঘিরে ফেলে। তখন কয়েকজন পুলিশ বাড়ীর দরজা ভেঙ্গে বাড়ীর ভেতর প্রবেশ করে।তাদের মধ্যে একজনের হাতে লাঠি নিয়ে আমাদের মারে এবং টানাহেঁচড়া করে, পরবর্তীতে সেই ব্যাক্তির হাতে দাঁ দেখে আমরা আতংকিত হয়। তখন সে ইউনিফর্ম ছাড়া, মনে করছি কোন ভাড়াটি সন্ত্রাসী, পরে আমাদের থানায় আনার পর জানতে পারি সে পুলিশের এস আই আল আমিন।থানায় আনার পরও থেমে জাননি সেই আল আমিন। পুলিশের এমন আচরণে হতভম্ব। আমরা এর শাস্তি চাই। এবং সেই পুলিশ অফিসার আমাদের বাড়ীতে থাকা কাগজ পত্র নিয়ে আসে, তা আমাদের আর দেয়নি। আমাদের এটার শাস্তি চাই।